• বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল, ফার্মগেট, ঢাকা – ১২১৫
  • info@barc.gov.bd
  • ০২-৯১৩৫৫৮৭

Online সার সুপারিশমালা

উদ্ভিদ পুষ্টি উপাদান

প্রাণীদের বেঁচে থাকার জন্য যেমন খাদ্যের প্রয়োজন হয় ফসলের বেঁচে থাকা ও স্বাভাবিক বৃদ্ধির জন্যও তেমন খাদ্যের তথা পুষ্টি উপাদানের প্রয়োজন হয়। উদ্ভিদের বেঁচে থাকা, স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও জীবন চক্র (বীজ গজানো থেকে শুরু করে বীজ উৎপাদন পর্যন্ত) সম্পন্ন করার জন্য মোট ১৬টি পুষ্টি উপাদানের প্রয়োজন হয়। পুষ্টি উপাদানগুলো হচ্ছে কার্বন, হাইড্রোজেন, অক্সিজেন, নাইট্রোজেন, ফসফরাস, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, সালফার (গন্ধক), জিংক (দস্তা), বোরণ, কপার, আয়রণ, ম্যাঙ্গানিজ, মোলিবডেনাম ও ক্লোরিন। প্রথম নয়টি পুষ্টি উপাদান অর্থাৎ কার্বন থেকে সালফার পর্যন্ত ফসলে বেশি পরিমাণে প্রয়োজন হয় বিধায় এদেরকে মূখ্য পুষ্টি উপাদান এবং বাকি সাতটি উপাদান কম পরিমাণে দরকার হয় বিধায় এদেরকে গৌণ পুষ্টি উপাদান বলা হয়। এ পুষ্টি উপাদানের সবগুলিই মাটিতে বিদ্যমান রয়েছে। এগুলোর কোন একটির অভাব হলে আরেকটি দিয়ে তা পুরণ করা যায় না, উদ্ভিদের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ব্যহত হয় এবং উদ্ভিদ তার জীবন চক্র সম্পন্ন করতে পারে না। এজন্য এগুলোকে উদ্ভিদের অত্যাবশ্যকীয় পুষ্টি উপাদান বলা হয়। এছাড়া আরও কিছু উপাদান রয়েছে যেমন- নিকেল, কোবাল্ট, সোডিয়াম, সিলিকন, সেলেনিয়াম ও ভেনাডিয়াম উদ্ভিদের জন্য অত্যাবশ্যকীয় নয় তবে উপকারি উপাদান হিসেবে বিবেচনা করা হয়। উদ্ভিদ কার্বন, হাইড্রোজেন ও অক্সিজেন এ তিনটি উপাদান বাতাস ও পানি থেকে গ্রহণ করে এবং বাকি ১৩টি উপাদান মাটি থেকে শিকড়ের মাধ্যমে গ্রহণ করে থাকে।প্রাণীদের বেঁচে থাকার জন্য যেমন খাদ্যের প্রয়োজন হয় ফসলের বেঁচে থাকা ও স্বাভাবিক বৃদ্ধির জন্যও তেমন খাদ্যের তথা পুষ্টি উপাদানের প্রয়োজন হয়। উদ্ভিদের বেঁচে থাকা, স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও জীবন চক্র (বীজ গজানো থেকে শুরু করে বীজ উৎপাদন পর্যন্ত) সম্পন্ন করার জন্য মোট ১৬টি পুষ্টি উপাদানের প্রয়োজন হয়। পুষ্টি উপাদানগুলো হচ্ছে কার্বন, হাইড্রোজেন, অক্সিজেন, নাইট্রোজেন, ফসফরাস, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, সালফার (গন্ধক), জিংক (দস্তা), বোরণ, কপার, আয়রণ, ম্যাঙ্গানিজ, মোলিবডেনাম ও ক্লোরিন। প্রথম নয়টি পুষ্টি উপাদান অর্থাৎ কার্বন থেকে সালফার পর্যন্ত ফসলে বেশি পরিমাণে প্রয়োজন হয় বিধায় এদেরকে মূখ্য পুষ্টি উপাদান এবং বাকি সাতটি উপাদান কম পরিমাণে দরকার হয় বিধায় এদেরকে গৌণ পুষ্টি উপাদান বলা হয়। এ পুষ্টি উপাদানের সবগুলিই মাটিতে বিদ্যমান রয়েছে। এগুলোর কোন একটির অভাব হলে আরেকটি দিয়ে তা পুরণ করা যায় না, উদ্ভিদের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ব্যহত হয় এবং উদ্ভিদ তার জীবন চক্র সম্পন্ন করতে পারে না। এজন্য এগুলোকে উদ্ভিদের অত্যাবশ্যকীয় পুষ্টি উপাদান বলা হয়। এছাড়া আরও কিছু উপাদান রয়েছে যেমন- নিকেল, কোবাল্ট, সোডিয়াম, সিলিকন, সেলেনিয়াম ও ভেনাডিয়াম উদ্ভিদের জন্য অত্যাবশ্যকীয় নয় তবে উপকারি উপাদান হিসেবে বিবেচনা করা হয়। উদ্ভিদ কার্বন, হাইড্রোজেন ও অক্সিজেন এ তিনটি উপাদান বাতাস ও পানি থেকে গ্রহণ করে এবং বাকি ১৩টি উপাদান মাটি থেকে শিকড়ের মাধ্যমে গ্রহণ করে থাকে।